মায়ের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে কোটি টাকার প্রাসাদোপম বাড়ি, বিতর্কে তৃণমূল কাউন্সিলর

0 69

- Advertisement -

ওয়েব নিউজ, ৮মে: সম্প্রতি তৃণমূল নেতাদের বিপুল সম্পত্তি ও প্রাসাদোপম বাড়ির একাধিক ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বিতর্কিত বাড়ি হল ‘কোটি টাকার বাড়ি’। বাড়ির মালিকের চেয়ে এলাকায় বাড়িটি বেশি পরিচিত। বাড়িটি হল উত্তর ২৪ পরগনার বাদুরিয়া পুরসভার সাত নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর সুধাংশু মন্ডল এর বাড়ি।

- Advertisement -

একসময় ছোট একটি ওষুধের দোকান থেকে আর কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক না লটারি নয়, চার বার কাউন্সিলর ও একবার উপ পৌরপ্রধান হয়ে তাঁর ভাগ্য তিনি ফিরিয়ে এনেছেন। সুধাংশু মন্ডল এর এই প্রাসাদতুল্য বাড়িটি ঘিরে এবার বিতর্ক তুঙ্গে।

বাড়ি ও সম্পত্তির বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে সুধাংশ বাবু জানান পুরনো দোতলা বাড়িটি ভেঙে পড়েছিল। মা চেয়ে ছিলেন একটা ঠিকঠাক বাড়ি যেন দাঁড় করাতে পারি। মায়ের কথা রাখতেই হাজার সাতেক বর্গফুটের বাড়িটা তৈরি করেছি।

তবে স্থানীয় ও বিরোধীদের দাবি, আয়ের তুলনায় ব্যয়ের পরিমাণটা; বেশি নইলে মাত্র ৪ বার কাউন্সিলের হয়েই ১০ কাটার ওপরে একটা আস্ত প্রাসাদ তৈরি করা সহজ ব্যাপার নয়। এ প্রসঙ্গে তৃণমূল কাউন্সিলর বলেন, বিরোধীরা এমন অনেক কথা বলে। সততার জন্য মানুষ আমাকে চারবার ভোটে জিতিয়েছে। আমি সৌখিন মানুষ। প্রথমে কংগ্রেসের হয়ে পরে তৃণমূলের হয়ে ২৭ বছর ধরে রাজনীতি করছি। বাড়ি, জমি ও ছেলের জন্য গাড়ি ছাড়া আর তেমন কিছুই করিনি।

তিনি বলেন কাউন্সিলরের হাজার দেড়েক টাকার সংসার চলতে পারেনা। তাঁর মতে, বিরোধীদের সবকিছুতেই মিথ্যা প্রচার।সততাকে পছন্দ করে মানুষ। নিজের রোজগারের ব্যাপারেও সাফাই দিয়েছেন ওই নেতা বলেছেন,”বাবা সরকারি চাকরি করতেন। অবস্থা কোনদিনই আমাদের খারাপ নয় । তাছাড়া স্ত্রীর খামারে ১১ হাজার মুরগি আছে । আত্মীয়দের ঠিকাদারী লাইসেন্স আছে সেখানেও কাজে হাত লাগাতে হয়। কাজেই মানুষের কাছ থেকে তোলাবাজি করে বাড়ি তৈরি করার দরকার আমার পড়েনি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.