চাঁচলে আগুনে পুড়ে ছাই আবাস যোজনার টাকা,পাশে বিধায়ক

0 102

- Advertisement -

মালদা , ০৪ এপ্রিল : সদ‍্য হাতে পেয়েছিলেন পাকা বাড়ি নির্মাণের প্রথম কিস্তির টাকা।স্বপ্ন দেখেছিলেন তার টালির ছাউনি সরিয়ে কংক্রিটের ছাদ দিবে।কিন্ত সেই স্বপ্ন একরাতে দুঃস্বপ্নে পরিণত হল।চোখের সামনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল বসতবাড়ি।

- Advertisement -

তার সাথে পুড়ে ছাই হল আবাস যোজনা গচ্ছিত নগদ ৪৫ হাজার টাকা। এমনি মর্মস্পর্শী ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের চাঁচল-২ নং ব্লকের সাহুরগাছি গ্রামের কুরবান আলীর বাড়িতে।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,নৈশ আহার সেরে ঘরে ঘুমোচ্ছিলেন পরিবারের সদস‍্যরা। হঠাৎ আগুনের উত্তাপ গা জুড়ে।পরিবারের কর্তা উঠে দেখেন টালির ছাউনিতে দাউ দাউ করে জ্বলছে আগুন।চিৎকারে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা।সবাই পুকুর থেকে জল তুলে আগুন নেভানোর কাজে ঝাপিয়ে পড়ে।তাতেও নিয়ন্ত্রণে না আসলে দমকলে খবর দেওয়া হলে দুটি ইঞ্জিন এসে নিয়ন্ত্রণে আনে আগুন।তবে ততক্ষনে সব শেষ।স্থানীয় ও দমকল কর্মীদের অনুমান,শর্ট সার্কিটের জেরেই এই অগ্নিকাণ্ড।

বাড়ির গৃহকর্তা কুরবান আলি দাবি করেছেন,তিনটি ঘর ভস্মীভূত হওয়ায় আবাস যোজনার ৪৫ হাজার টাকা ও ঘরের মজুত ধান,পাট,খাদ‍্য সামগ্রী,দলিলপত্র,নথিপত্র সহ বিভিন্ন ঘরোয়া সামগ্রি পুড়ে ছাই হয়েছে।এমতাবস্থায় খোলা আকাশের নীচে দিন গুজরান চলছে পরিবারের সদস‍্যদের।এমতাবস্থায় সরকারি সাহায্য না মিললে পথে বসতে হবে বলে জানাচ্ছেন দুর্গত পরিবার।

ঘটনার খবর পেয়ে সোমবার সকালে ত্রান সামগ্রী নিয়ে দুর্গতের বাড়িতে পৌঁছায় মালতিপুরের বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সি ও মালদা জেলাপরিষদের সভাধিপতি এটিএম রফিকুল হোসেন।সরকারি ভাবে সাহায‍্য পাইয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তারা।চাঁচল-২ নং ব্লকের বিডিও দিব‍্যজ‍্যোতি দাস জানিয়েছেন,আবেদন করতে বলা হয়েছে।সরকারিভাবে ত্রান ও সাংসারিক প্রয়োজনীর কিট দেওয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.