অভিনব পদ্ধতিতে ঐতিহ্যবাহী গম্ভীরা গানের মধ্যে আন্দোলনের ভাষা

0 32

- Advertisement -

মালদা,  ২২ এপ্রিল:   দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে গম্ভীরা গানের মাধ্যমে প্রচার শুরু করেছেন মালদার বেশকিছু শিল্পীরা। পেট্রোল, ডিজেল এবং রান্নার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির জেরে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীর দাম দিনের পর দিন বাড়তেই চলেছে । নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্তের ঘরে হেঁসেলে টান পড়েছে অনেক কিছুরই । আর সেসব বিষয় বস্তুকে সামনে রেখেই গম্ভীরা শিল্পীরা এখন এই পেট্রোপণ্য  মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ তাদের গানের মাধ্যমেই গেয়ে চলেছেন।

- Advertisement -

স্বয়ং মহাদেবের সজ্জায় সজ্জিত গম্ভীরা শিল্পী সাধারণ মানুষের সামাজিক দুর্দশার বাস্তব চিত্র তাদের গানের প্রচারের মাধ্যমে তুলে ধরেছেন। মালদার ইংরেজবাজার শহরের কুতুবপুর গম্ভীরা দল স্বাধীনতার আগে থেকেই তাদের পথ চলা শুরু। ১৯৪১ সালে তাদের এই দলটি প্রতিষ্ঠা করেন প্রয়াত গম্ভীরা শিল্পী গোবিন্দলাল শেঠ এবং গোপীনাথ শেঠ। স্বাধীনতা সংগ্রামী বিষয়ের উপরে বহু গান তারা রচিত করেছেন। সেই সময় কালে গান গাইতে গিয়ে অনেক শিল্পী ব্রিটিশদের হাতে অত্যাচারিত হয়েছেন। আজকে সেই দল বর্তমান ভারতবর্ষের সমাজের বাস্তব চিত্রকে তাদের প্রতিবাদী গান হিসেবে জনগণের কাছে তুলে ধরছেন। ভারতে দিনে দিনে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস থেকে ডিজেল পেট্রোল তেল শাকসবজি ফল মূল্যবৃদ্ধির এই প্রতিবাদ গান বাঁধছেন কুতুবপুর গম্ভীরা দল শিল্পীরা। প্রতিদিনই তাদের রেওয়াজ চলছে। 

শুক্রবার ইংরেজবাজার শহরের কুতুবপুর এলাকায় তাদের এক শিল্পীর বাড়িতে বসে গান চর্চা করছেন শিল্পীরা ‌ । বর্তমানে এই দলের গান লেখা ও পরিচালক প্রশান্ত শেঠ। গম্ভীরা দলের মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন শিল্পী অশোক চক্রবর্তী মহাদেব অংশগ্রহণ করছেন তার নাম কার্তিক বর্মণ।

গম্ভীরা শিল্পী অশোক চক্রবর্তী জানিয়েছেন, গম্ভীরা গান স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ করেছিল। আজকে এই গম্ভীরা শিল্পীদের গান সাধারণ মানুষের কথা তুলে ধরে ‌।  বর্তমান সমস্যা যে হারে রান্নার গ্যাস , ডিজেল-পেট্রোল নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বেড়েই চলেছে সেক্ষেত্রে সাধারণ মানুষ চরম বিপদে পড়েছে তাদের কথা ভেবে আজকে গম্ভীরা দল মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গান বাধা হয়েছে এবং সেটি সাধারণ মানুষের কাছে প্রচার করা হচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.