রাজনৈতিক দলে সরাসরি নাকচ প্রশান্ত কিশোরের, জানালেন আগামীর পরিকল্পনা

0 39

- Advertisement -

ওয়েব নিউজ, ৫মে: প্রশান্ত কিশোর ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে মোদী সরকারকে ক্ষমতায় আনার জন্য লাইমলাইটে এসেছিলেন। তিনি একজন চমৎকার নির্বাচনী কুশলী হিসেবে পরিচিত। সবসময়ই পর্দার আড়ালে থেকেই তিনি সবসময় নির্বাচনী কৌশল বাস্তবায়ন করেছেন। ৩৪ বছর বয়সে আফ্রিকা থেকে জাতিসংঘের(ইউএন) চাকরি ছেড়ে কিশোর ২০১১ সালে গুজরাটের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর টিমের সঙ্গে যুক্ত হন। পিকে-কে মোদীর উন্নত বিপণন এবং বিজ্ঞাপন প্রচারের কৃতিত্ব দেওয়া হয় যেমন চায় পে চর্চা, থ্রিডি র‌্যালি, রান ফর ইউনিটি, মন্থন। তিনি ইন্ডিয়ান পলিটিক্যাল অ্যাকশন কমিটি (আইপ্যাক) নামের একটি সংস্থা চালান।

 

 

 

- Advertisement -

প্রশান্ত কিশোর তার রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্ক্ষা নিয়ে উঠা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে, তিনি কোনো রাজনৈতিক দল তৈরি করছেন না। তিনি বলেন, লালুপ্রসাদ যাদব ও নীতীশ কুমারের ৩০ বছরের শাসনের পরেও বিহার সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া রাজ্য। বিহারের উন্নতি করতে হলে সবাইকে একজোট হতে হবে।

 

 

 

প্রশান্ত কিশোর আরও বলেন, ‘আমার যা কিছু আছে, আজ তা সম্পূর্ণরূপে বিহারকে উৎসর্গ করছি। বিহারের মানুষের সাথে সাক্ষাৎ করা, তাদের দৃষ্টিভঙ্গি বোঝা এবং জনসুরাজের দর্শনের সাথে তাদের সংযুক্ত করাই আমার উদ্দেশ্য। আগামী চার মাসে আমি হাজার হাজার মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করব যারা বিহারের স্বার্থ চান। যদি বিপুল সংখ্যক মানুষ এই প্রচারণার অধীনে যোগদান করে এবং রাষ্ট্রের অবস্থার পরিবর্তনের জন্য একটি নতুন রাজনৈতিক দলের প্রয়োজনে একমত হন, তবে তা করার চেষ্টা করা হবে।”

 

 

 

এই সংবাদ সম্মেলন থেকেই প্রশান্ত কিশোর বিহারকে নিরাপদ ও উন্নয়নশীল করতে তিনি সহযোগিতা করবেন বলে ঘোষণা করেছেন। তিনি আরও জানান, ২ অক্টোবর থেকে চম্পারণ থেকে পদযাত্রা বের করবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.