সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য বিজেপি নেতার, চাঞ্চল্য নাটাবাড়ি বিধানসভায়

0 62

- Advertisement -

কোচবিহার, ২১ এপ্রিল : স্যোশাল মিডিয়ায় এক বিজেপি কর্মীর পোস্ট ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল নাটাবাড়ি বিধানসভা এলাকায় ।বিজেপির ৩০ মন্ডলের সাধারণ সম্পাদক মিন্টু রায় লিখেছেন,” বলি কি নাটাবাড়ি বিধানসভার বিধায়ক মিহির গোস্বামী নিরুদ্দেশ হয়েছে নাকি উপরে চলে গেছে। এলাকার মানুষ কবে দেখেছে মনে করতে পারছে না।” আরেকটি পোস্টে মিহির গোস্বামীর ছবি সহ লিখেছেন, “সন্ধান চাই। আপনি কি বাংলা থেকে নিরুদ্দেশ  হয়েছেন।”

- Advertisement -

এদিন আবারও ওই মন্ডল সম্পাদকের একটি পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে।যাতে তিনি বলেছেন, বিজেপি কোচবিহার জেলা সভাপতি সুকুমার রায় কে বলছি গতকাল আমার ফেসবুক পোস্টে আপনি মন্তব্য করেছেন আমি হতাশায় এই ধরনের পোস্ট করছি। আমি কোন হতাশা এই ধরনের পোস্ট করিনি।
আপনারা যদি সবাই এসে দল করার অনুরোধ করেন তবুও আমি দল করবো না।আপনার জেলার ফুল টিম নিয়ে সেখানে পড়ে থাকলেও ধলপল ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েত জিতিয়ে দেখান আমি চ্যালেঞ্জ করছি তো জেতাতে পারবেন না।কারণ একটাই মিন্টু রায় ।

 ভোটে জেতার পর নাটাবাড়ির মানুষ আপনাকে আর খুঁজে পাচ্ছেন না ।ভোটে জেতার পর এলাকার কথা ভুলে গেছেন??? এই পোস্টে কমেন্ট বক্সে কেউ লিখছে,  উয়ায় কলিকাতাত কানিয়াল চাপি ধরছে। ছাওয়া মরে মরুক,তবুও ক্রিমি নাশ করিবে।

গত বিধানসভা নির্বাচনে নাটাবাড়ি কেন্দ্র থেকে মিহির গোস্বামী বিজেপির হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন।সেই কেন্দ্র থেকে তিনি জিতে বিজেপির বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। ভোটের আগে যতটা তাঁর এলাকায় এসেছিলেন, জেতার পর তাঁকে এলাকাবাসী দু একবার মাত্র পেয়েছিলেন বলেই জানা যায়। জনগণ তাঁকে পছন্দ করেছিলেন বলেই তিনি জিতেছিলেন। কিন্তু এলাকাবাসীর কথা তিনি এত তাড়াতাড়ি কি করে ভুলে গেলেন এই মন্তব্য বিজেপির কিছু কর্মীরাই করছেন। প্রশ্ন উঠেছে, যেখানে দলের সদস্য হয়ে বিধায়কের খবর পাচ্ছেন না, সেখানে সাধারণ মানুষ বিধায়ককে কতটা কাছে পাচ্ছেন তা যথেষ্ট উদ্বেগজনক।

Leave A Reply

Your email address will not be published.