ফের টুইটারে ফিরছেন ট্রাম্প? ইলন মাস্ক-এর মন্তব্যে জল্পনা তুঙ্গে

টুইটারে ফের একবার দেখা যাবে আমেরিকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। টুইটার কর্তৃপক্ষ তাঁকে সাসপেন্ড করেছিল জানুয়ারি মাসে। এলন মাস্ক টুইটারের ক্ষমতা পাওয়ার পর থেকেই প্রশ্ন উঠছিল, এবার কি টুইটারে কামব্যাক করার সম্ভাবনা রয়েছে ট্রাম্পের? ট্রাম্প নিজে অবশ্য সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছিল। কিন্তু, নতুন করে সেই জল্পনা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে ইলন মাস্ক এর নতুন টুইট কে ঘিরে।

0 49

- Advertisement -

ওয়েব ডেস্ক, ১১ মে :- টুইটারে ট্রাম্পের কামব্যাক! এলন মাস্কের মন্তব্য কে ঘিরে নয়া জল্পনা। একটি আন্তর্জাতির সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে Tesla Chief Elon Musk জানান, ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপর যে নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে টুইটার তা নিয়ে তিনি আলোচনা করবেন। অর্থাৎ অদূর ভবিষ্যতে এই নিষেধাজ্ঞা উঠে যেতেও পারে, ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। ৬ জানুয়ারি আমেরিকার ক্যাপিটল হিলসে বিক্ষোভের সময় বিক্ষোভকারীদের পক্ষ নিয়ে বিবৃতি দিয়েছিলেন ট্রাম্প। সেই সময় থেকেই তাঁকে ‘পার্মানেন্টলি’ সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল টুইটার। উল্লেখ্য, এলন মাস্ক টুইটার কেনার পরেও ট্রাম্প জানিয়েছিলেন তিনি আর এই মাইক্রো ব্লগিং অ্যাপে ফিরে আসতে চান না। তার বদলে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজস্ব অ্যাপ Truth Social নিয়ে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। এই অ্যাপের মধ্য দিয়েই জনগনের কাছে ‘সত্য’ তুলে ধরতে চান বলে দাবি করেছিলেন ট্রাম্প।

- Advertisement -

কিন্তু, এবার এলনের কথায় নতুন করে ছড়াল জল্পনা। তবে কি তাঁর উপর যাবতীয় নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নিতে চলেছে টুইটার? উল্লেখ্য, ট্রাম্পের টুইটারে ফলোয়ার সংখ্যা নেহাত কম ছিল না। সংখ্যা ৮৮ মিলিয়ন। উল্লেখ্য, প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্টের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারের উপর দু বছর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা। ২০২৩ সালের ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত এই দুই প্ল্যাটফর্মে কোনও পোস্ট শেয়ার করতে পারবেন না ট্রাম্প। গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটলে বিক্ষোভের সময় ট্রাম্পের বেশ কিছু মন্তব্য হিংসাকে উস্কে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল বলে অভিযোগ ফেসবুক কর্তৃপক্ষের । তাই কোম্পানির ওয়েবসাইটে ব্লগ পোস্ট করে ট্রাম্পের সাসপেনশনের বিষয়টি জানানো হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.