জরুরি অবস্থা, কারফিউ জারির পর শ্রীলঙ্কায় বন্ধ সোশ্যাল মিডিয়া

0 77

- Advertisement -

ওয়েব ডেস্ক, ৩ এপ্রিল:- ১৯৪৮ সালে স্বাধীনতার লাভের পর কখনো এতটা দুরবস্থায় পড়েনি শ্রীলঙ্কা। বৈদেশিক মুদ্রার তীব্র সংকট দেশটির অর্থনীতিকে বেসামাল করে তুলেছে। এই মুহূর্তে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে দেশটি।

- Advertisement -

অর্থনীতির এই চরম সংকট কালে দেশজুড়ে সোশ্যাল মিডিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে রাজাপাকসে সরকার। সরকারের আশঙ্কা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম গুলোকে কাজে লাগিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়তে পারে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ। আর তা থামাতেই সরকারের এই পদক্ষেপ।

দেশজুড়ে জারি জরুরি অবস্থা, কারফিউ ও সোশ্যাল মিডিয়া গুলো বন্ধ করে দেওয়ার ফলে মানুষের মৌলিক অধিকার খর্ব হচ্ছে বলে আশঙ্কা করেছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন।

শ্রীলঙ্কার গোতাবায়া রাজাপাকসে সরকার দেশজুড়ে ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, টিকটক, টেলিগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট, গুগল ভিডিও, ভাইবার প্রভৃতি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম গুলি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।

ভারত মহাসাগরীয় দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলঙ্কায় বাস ২ কোটি মানুষের। জ্বালানি তেল থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস সবকিছুর আকাল দেশটিতে। বন্ধ গণপরিবহন। দেশজুড়ে বন্ধ রাখতে হচ্ছে ১৩ ঘণ্টা বিদ্যুৎ পরিষেবা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.