আবেদন করা সত্ত্বেও মিলছে না জাতি শংসাপত্র, সাহায্যের বদলে আধিকারিক থেকে মিলছে দুর্ব্যবহার, অসন্তোষ পড়ুয়াদের মধ্যে

0 63

- Advertisement -

মালদা, ৮ এপ্রিল :  আবেদন করার পরেও সময়মতো মিলছে না তপশিলি জাতি, উপজাতি এবং ওবিসি শংসাপত্র বলে অভিযোগ উঠেছে । যার ফলে চরম সমস্যায় পড়েছেন হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লকের অসংখ্য ছাত্র ছাত্রীরা।  ইতিমধ্যেই অনলাইন এবং দুয়ারের সরকার প্রকল্পের মাধ্যমে কাস্ট সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু বছর গড়িয়ে গেল এখনও পর্যন্ত কাস্ট সার্টিফিকেট হাতে পায় নি সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রচুর ছাত্র-ছাত্রীরা। ফলে কন্যাশ্রী সহ একাধিক স্কলারশিপ এবং ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য থাকা সরকারি প্রকল্প গুলোর সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এলাকার একাংশ পড়ুয়ারা। এমনকি জাতিগত প্রশংসাপত্র না থাকার কারণে পছন্দের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় মেধাতালিকাতেও আসতে পারছেন না। 

- Advertisement -

এ নিয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লকের ব্যাকওয়ার্ড ক্লাস ওয়েলফেয়ার আধিকারিকের দপ্তরের গেলে জুটছে দুর্ব্যবহার এমনটাই বলছেন আবেদনকারী অনেক পড়ুয়ারা। জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র অবশ্য পুরো অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার আশ্বাস দিয়েছেন। 

এদিকে হরিশ্চন্দ্রপুরের এক অভিভাবক দেবব্রত শর্মা জানিয়েছেন,  আমার দুই মেয়ের জন্য আমি এসসি সার্টিফিকেটের আবেদন জানিয়ে ছিলাম। প্রায় আট মাস হতে চললো এখনও পর্যন্ত কোন সার্টিফিকেট পাওয়া যায় নি। দপ্তরে গেলে আধিকারিকের দেখা পাওয়া যায় না । এমনকি দুর্ব্যবহারের শিকার হতে হচ্ছে। সার্টিফিকেট না পাওয়ার কারণে আমার দুই মেয়ে এখনও সরকারি প্রকল্প থেকে বঞ্চিত থাকছে। এরকম অভিযোগ অনেক অভিভাবকের।

সংশ্লিষ্ট দপ্তরের হরিশ্চন্দ্রপুরের এক আধিকারিক প্রবাহন ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করেন নি। 

তৃনমূলের হরিশ্চন্দ্রপুর অঞ্চল চেয়ারম্যান সঞ্জীব গুপ্ত জানিয়েছেন , আমরা শুনতে পেয়েছি ব্যাকওয়ার্ড ক্লাস ওয়েলফেয়ার দপ্তরের কিছু অফিসার কর্মীরা এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের হয়রানি করছে। আমরা এই বিষয়ে প্রশাসনের সঙ্গে  অবিলম্বে আলোচনায় বসবো। 

Leave A Reply

Your email address will not be published.