সিবিএসই নতুন সিলেবাসে নেই ইসলামিক সাম্রাজ্য; তবে কি শিক্ষাকে গৈরিকিকরণের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বোর্ড?

0 45

- Advertisement -

ওয়েব ডেস্ক, ২৫ এপ্রিল : প্রকাশিত হল সেন্ট্রাল বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশনের নতুন পাঠক্রম। নবম – দশম একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং ইতিহাসের কিছু কিছু অধ্যায় বাতিল করা হয়েছে বোর্ডের তরফ থেকে।

- Advertisement -

সিবিএসই বোর্ডের একাদশ শ্রেণীর পাঠক্রম থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে ‘ সেন্ট্রাল ইসলামিক ল্যান্ড ‘ । এই অধ্যায়ে ইসলাম ধর্মের আবির্ভাব , খিলাফতের উত্থান, ইসলামী সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠা , তৎকালীন অর্থনীতি ও সেই সময়ে ভারতে এর প্রভাব সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা ছিল। কিন্তু বোর্ড থেকে জানানো হয় এই অধ্যায় পড়তে হবে না। ‘ শিল্প বিপ্লব ‘ অধ্যায়টিও baad দেওয়া হয়েছে। বিখ্যাত উর্দু কবি ফৈজের দুটো কবিতার অংশও বাদ পড়েছে সিলেবাস থেকে।

আবার দ্বাদশ শ্রেণীর ইতিহাস সিলেবাস থেকে ‘ দ্য মুঘল কোর্ট : রিকনস্ট্রাক্টিং হিস্ট্রিস থ্রো ক্রনিকলস ‘ অধ্যায়টিও বাদ দিয়েছে বোর্ড। এছাড়া রাষ্ট্রবিজ্ঞান থেকে বাদ পড়েছে স্নায়ু যুদ্ধ ও জোট নিরপেক্ষ আন্দোলন সংক্রান্ত অধ্যায় গুলো ।

সিবিএসই বলছেন , কোরোনা কালে শিক্ষার্থীদের মধ্যে পড়াশোনার চাপ সৃষ্টি হওয়ায় এনসিইআরটি – র সাথে পরামর্শ করেই এই অধ্যায় বদল। তবে এই রদ বদলে বিরোধী পক্ষ ক্ষোভে ফুঁসছে, তাঁদের মতে ২০২২ – ২৩ এর পাঠক্রমে সমাজবিজ্ঞান , ইতিহাস ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানে বিজেপি পরিপন্থী অধ্যায়গুলো বাদ দেওয়া হয়েছে।

আমাদের রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেন, ‘সিবিএসই বোর্ড গেরুয়াকরণের নিকট বশ্যতা স্বীকার করেছে। আমরা তো কখনোই করবো না।’ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বলেন, ইতিহাস যদি পড়ুয়াদের খাপছাড়া ভাবে পড়ানো হয় তাহলে তাদের এই সম্পর্কে কখনোই স্পষ্ট ধারণা গড়ে উঠবে না।

শিক্ষাবিদদের একাংশের মতে, এই পরিবর্তনের লক্ষ্য শিক্ষাকে গৈরিকিকরণ করা। বিজেপি সরকার বিশ্ব ইতিহাসে মুসলিম সম্প্রদায়ের অবদানকে আড়ালে রেখে নতুন প্রজন্মকে অন্ধকারে রাখছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.