৩৪ বছর পুরনো বাজার, অথচ নেই কোনো সুষ্ঠ পরিকাঠামো, অভিযোগ দায়ের সত্ত্বেও নিশ্চুপ কর্তৃপক্ষ

0 47

- Advertisement -

কোচবিহার, ৮ এপ্রিল : তুফানগঞ্জ ১নং ব্লকের ধলপল ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত কালিবাড়ি এলাকায় ১৯৮৮ সালে ৩৬ একর জমির উপর গড়ে উঠেছে নিয়ন্ত্রিত বাজার। তুফানগঞ্জ শহরের বাজারের চাপ কমাতে শহর থেকে তিন কিলোমিটার উত্তরে তুফানগঞ্জ ভাটিবাড়ী রাজ্য সড়কের পাশে বাজারটি গড়ে ওঠে। বাজারটি শুরুর পর তিনবার বন্ধ হয়েছিল।২০০৬ সাল থেকে পুনরায় চালু হয়েছে। বাজারে আছে স্থায়ী দোকান। তাছাড়া এখানে প্রতি সোমবার গরুর হাট বসে। ২০১৩ সালে বাজারে ১০৫ টি-স্টল চালু হয়।

- Advertisement -

ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের অভিযোগ বাজার চত্বরের নেই পানীয় জলের ব্যবস্থা। নেই ব্যবহারযোগ্য শৌচাগার নিয়মিত আবর্জনা সাফাই হয় না।রাতে বাজার চত্বরে বড় অংশ অন্ধকারে ডুবে থাকে। অন্ধকারের সুযোগে অসামাজিক কাজকর্মের পাশাপাশি দোকানে চুরি হয়।

ব্যবসায়ীদের একাংশের দাবি, পরিকাঠামোর অভাব বাজারের ব্যবসায়ীরা বিপাকে পড়েছেন।ফলে ক্রেতা না আসায় তাদের বেচাকেনা তেমন হয় না। শুরু থেকেই বাজারটি নানা সমস্যায় ভুগছে।এই বাজারে পরিশ্রুত পানীয় জলের ব্যবস্থা নেই। রাতে পর্যাপ্ত আলো না থাকায় মাঝেমধ্যেই দোকানে মালপত্র চুরি হচ্ছে।নিয়ন্ত্রিত বাজারের রাস্তা ভেঙ্গে গিয়েছে। বাজারে শৌচাগার সাফাই না হওয়ায় বেহালদশা রয়েছে।

স্টল থেকে প্রতি মাসে টাকা ও অন্যান্য সবজির দোকান, মাছের দোকান থেকে সাপ্তাহিক খাজনা আদায় করা হয়।কিন্তু বাজারে ঠিকমত পরিষেবা দেওয়া হয় না বলে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ। ব্যবসায়ীদের দাবি প্রশাসনের চূড়ান্ত গাফিলতির কারণেই ক্রেতাশূন্য হতে চলেছে নিয়ন্ত্রিত বাজার।এমনকি আমরা ন্যূনতম পরিষেবা পাচ্ছি না। দিনদিন ক্রেতার সংখ্যা কমে যাচ্ছে কোনওদিন বৌনিও হয়না।

তুফানগঞ্জ নিয়ন্ত্রিত বাজার কমিটির প্রাক্তন ইনচার্জ নেপাল চন্দ্র দে বলেন, সমস্যার কথা কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।আশা করি শীঘ্রই সমস্যার সমাধান হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.