মুখ্যমন্ত্রীর পোল্ট্রি ফার্ম গড়ার পরিকল্পনায় মালদায় কেটে ফেলা হচ্ছে ৩০০টি গাছ, বিক্ষোভ আন্দোলনে মালদা বিভাগীয় বিজ্ঞান মঞ্চ

0 76

- Advertisement -

মালদা, ১৮ এপ্রিল: মালদা জেলার প্রাণীসম্পদ দপ্তর এর পোল্ট্রি ফার্মে প্রতিদিন তিন লক্ষ ডিম উৎপাদন গড়ার লক্ষ্যে পোল্ট্রি ফার্মের এলাকার প্রায় 300 টি গাছ কেটে দেওয়া হয়েছে এ ঘটনায় জোর বিতর্ক দেখা দিয়েছে গাছ কাটার প্রতিবাদে আন্দোলনে পাশাপাশি অবস্থান বিক্ষোভে যেতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের মালদহ জেলা শাখা।

- Advertisement -

মালদহ জেলা কৃষি দফতরের কৃষি ফার্ম এলাকায় জেলা প্রাণী বিকাশ সম্পদ দফতরের একটি পুরোন পোল্ট্রি ফার্ম ছিল। সেই পোল্ট্রি ফার্মটি বন্ধ করা হয়েছে। প্রশাসনিক সূত্রে জানা গিয়েছে, মালদহ জেলায় একটি বড় মাপের পোল্ট্রি ফার্ম গড়ার কথা কয়েক মাস আগে ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ জন্য জেলার পুরনো পোল্ট্রি ফার্মের সেই জমিতেই ওই অত্যাধুনিক প্রযুক্তির পোল্ট্রি ফার্ম করার উদ্যোগ নেওয়া হয়।

প্রশাসনিক সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, মালদহে এমন একটি পোল্ট্রি ফার্ম হবে যেখানে প্রতিদিন অন্তত তিন লক্ষ ডিম উৎপাদন হবে। তাতে মালদহ জেলার ডিমের চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি অন্যান্য কিছু জেলার ডিমের চাহিদা মেটাবে বলে আশাবাদী প্রাণীসম্পদ বিকাশ বিভাগ। এদিকে, মেগা সেই পোল্ট্রি ফার্ম গড়তে গিয়ে পুরনো ফার্ম চত্বরের ছোট-বড় মিলিয়ে তিনশোর বেশি গাছ নির্বিচারে কেটে ফেলা হচ্ছে বলে অভিযোগ। আম গাছের পাশাপাশি অন্যান্য গাছও কেটে ফেলা হচ্ছে। আর এই গাছ কাটার প্রতিবাদে আন্দোলনে নেমেছে পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চ। সংগঠনের জেলা সম্পাদক সুনীল দাস বলেন, “একেই জেলাসদর ইংরেজবাজার শহরের গাছের সংখ্যা দিন দিন কমছে। তার উপর একসঙ্গে প্রায় ৩০০ গাছ কেটে শহরের প্রাকৃতিক ভারসাম্যকে নষ্ট করার চেষ্টা চলছে। অবিলম্বে গাছ কাটা বন্ধ করতে হবে‌ না হলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলন অবস্থান-বিক্ষোভ এ যেতে বাধ্য হব।”

জেলা প্রাণিসম্পদ বিকাশ বিভাগের উপ অধিকর্তা উৎপল কুমার কর্মকার বলেন, “অত্যাধুনিক প্রযুক্তির পোল্ট্রি ফার্ম গড়ার জন্য বন দফতরের অনুমতি নিয়ে প্রায় ৩০০ গাছ কাটা হচ্ছে। আমরা ওই চত্বরে নতুন করে গাছ লাগাব এবং জেলায় যে ৩৪ টি পশু হাসপাতাল রয়েছে সেখানেও আমরা নিয়মিত গাছ লাগিয়ে আসছি।” জেলার বনাধিকারিক সিদ্ধার্থ বি বলেন, “অনুমতি নিয়েই গাছ কাটা হচ্ছে। এদিকে গাছ কাটা নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপান উতোর। জেলা বিজেপির সাংগঠনিক দক্ষিণ মালদার সভাপতি পার্থ সারথী ঘোষ জানান সরকারের সঠিক পরিকল্পনার অভাব রয়েছে আমাদের যেমন পোল্ট্রি ফার্ম দরকার তেমন পরিবেশকে রক্ষা করা দরকার গাছ কাটা এটা পরিবেশের পক্ষে ক্ষতিকারক। অন্যদিকে এই বিষয়ে রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী জানান বিরোধীরা তো বিরোধিতা করার জন্যই, ওরা বলবেই কিছু গাছকে যদি কেটে দিয়ে আবার অন্য জায়গায় যদি গাছ লাগিয়ে নতুন প্ল্যান করা যেতেই পারে পাশাপাশি আমাদের ডিম উৎপাদন করা খুব দরকার।

Leave A Reply

Your email address will not be published.